anuradha1311

Smile! You’re at the best WordPress.com site ever

Archive for the month “এপ্রিল, 2013”

মুখ

সুনীতার মহাকাশের গল্প পড়ি কাগজের পাতায়
ছত্রে ছত্রে শিল্পীর অপূর্ব সৃষ্টির কথা বর্ণিত সেথায়
মহাকাশযান থেকে মহাশূন্যে ভেসে বেড়ানোর অভিজ্ঞতা
হে বিধাতা বিজ্ঞানের কি অপূর্ব মহিমা ঢোকেনা মাথায় ।

মানুষ চাঁদে যাচ্ছে , মঙ্গলগ্রহেও মারছে উঁকিঝুঁকি –
হয়ত বা আগামী কয়েক দশক বাদে হলিডে ট্রিপ হবে-
তিন রাত চার দিনের টিকিটের জন্য পড়ে যাবে লাইন
জানিনা চাঁদ ছাড়া অন্য কোন গ্রহেও মানুষ হয়ত যাবে ।

মন ভরে যায়, উঁচু হয় মাথা, ঠাকুর আমরাও তবে জানি
পারি তোমার সঙ্গে পাল্লা দিতে, আত্মম্ভরিতায় ভরে ওঠে বুক;
কিন্তু এত মহিমা, গরিমা সবের সঙ্গে যে পারিনা আপোষ করতে –
অনাহারে, অর্ধনগ্ন মানুষের কথা ভেবে কোথায় লুকাই মুখ ?

অনুরাধা গুপ্ত
কলকাতা ৮/৪/১৩

জলছবি

এই জীবনের জলছবিতে ভেসে ওঠে নানা রং , রঙের মেলা

বিশাল সেই ক্যানভাসের ওপর সরু মোটা তুলির টান –

কিছু টান খুবই সূক্ষ্ম আবার বেশ কিছু মোটা তুলির টানে দৃপ্ত

স্মৃতি যেন হয় সততই সুখের, মনের অতলে হয় আনচান ।

 

টাইম মেশিন যদি পেতাম হাতে , ফিরিয়ে নিতাম সব ভুল ;

হায় করতে যদি পারতাম তবে জীবন হয়তো হ’ত নিলীমায় নীল

কচি কলাপাতা রঙে ঢেকে দিতাম ক্যানভাস, কিছু ঘন সবুজ

তারপরে হলুদের ছোঁয়ায় খুশীর জোয়ার আনন্দ অনাবিল ।

 

এই বড় রঙ্গমঞ্চে উইংসের পাশ দিয়ে প্রবেশ করে কত চরিত্র

কেউবা সেই নাটকে নাট্যকারের হিসেব নিকেশ দেয় উলটে –

কোন চরিত্র খুবই বৈচিত্র্যময়, কত রঙের প্রলেপ তার পরতে, পরতে ;

প্রায়শই মনে হয় কেনই বা বিধাতা দেননি চরিত্রকে পালটে ।

 

বহু দশক বাদে দু বছরের অন্তরঙ্গতার টিকিট নিয়ে প্রবেশ

কিছু কুশীলব  যারা  ছিল ধূলোর আস্তরনে মলিন, ম্রিয়মান

হঠাত কোন কালবৈশাখী মনের গভীরে  উষ্ণতাকে  দেয় খোঁচা

আবার যাবে তারা হারিয়ে , বিদায় নেবে আচমকা পত্রপাঠ ।

 

এগিয়ে যেতে হবে , ছিঁড়ে সব মায়ার জাল , সেই লক্ষ্যে

যেখানে আলোয় আলোকময় করে ব্যাপ্ত সেই আলোর আলো –

কা তব কান্তা , কস্তে পুত্র , হৃদয়ের মাঝে নাড়বে কড়া

দৃপ্ত পায়ে নিয়ে আশার আলো আশ্বাস দিয়ে সকল ভালো ।

অনুরাধা গুপ্ত
কলকাতা ১৩/৪/১৩

Post Navigation