anuradha1311

Smile! You’re at the best WordPress.com site ever

চলচ্চিত্র

দূরে ইতস্তত বিক্ষিপ্ত কয়লার বালিয়ারী
হলুদ ও সবুজের সংমিশ্রণে মাথা উঁচু করা বৃক্ষরাজি
দুটি টিলার মাঝে গ্রাম্য পথে এঁকে বেঁকে চলে গরবিণী
মাথায় তার মহুয়ার ঝুড়ি, কাঁখে শুকনো কাঠ ।

বিশাল পৃথিবীর একপ্রান্তে ছোট দীপখানি জ্বেলে
সে প্রণাম জানায় দূরের – বহু দূরের – নিভন্ত সূর্যকে
যার ম্লান আলোকে মোহময়ী হয়ে ওঠে ধরণী,
বেজে ওঠে শাঁখের আওয়াজের চেয়েও তীক্ষ্ণ পাঁচটার ভোঁ ।

চলচ্চিত্রের দৃশ্যের মত একে একে ভেসে ওঠে দৃশ্যাবলী
গোনা গুনতি বাবুরা – গুটি কয়েক বাড়ী – সবই চেনা ।
ধীরে ধীরে বাড়ে বসতি – মানুষের কোলাহলে নিস্তেজ হয় পাখীর কাকলী
কুসুমকানালীর জানালা থেকে ক্রমে অদৃশ্য হয় কারখানার চিমনী ।

মোহন আর শ্যামলীর আওয়াজ ঢাকা পড়ে যায়
সম্রাট, মোনালিসা, আর সুপারের ব্যস্ততায় ;
এক নম্বরের সামনে উদ্দাম মিনিগুলোর ব্যস্ততা
তাড়িয়ে ফেরে চারিদিকের নিস্তব্ধতা ।

মার্কেট সেন্টার তার নিয়ন আর হ্যালোজেনের আলোয়
ভুলিয়ে দেয় হ্যারিকেন-জ্বালা শণিমঙ্গলের মিহিজামের হাটকে ।
সবুজের ধূ ধূ মাঠে দানবের মত দাপিয়ে বেড়ায় ইট, কাঠ, ইমারত
পেট্রোলের গন্ধে চাপা পড়ে যায় মনমাতানো লেবুফুলের মিষ্টি সুবাস ।

পায়ে চলা মেঠো পথ এসে মেশে কালো পিচের রাস্তায়
বাঁধভাঙ্গা বালখিল্যের দল বই হাতে ছোটে রাস্তায়
বৈশাখের তপ্ত দুপুরে ক্লান্ত দেহে ৬ নম্বরের বিরাট গাছটার নিচে
পা এলিয়ে দেয় গরবিনী –
কি দ্রুত বদলে যাচ্ছে দৃশ্যগুলি ;
নীল আকাশের দিকে মাথা উঁচু করে অ্যান্টেনাগুলি ।
হারিয়ে গেছে সেই লু ‘এর দুপুর
হাড় কাঁপানো সেই পৌষের রাত –
তবে কি রূপনারায়ণপুরেও লেগেছে যান্ত্রিকতার ছোঁয়া । ।

অনুরাধা গুপ্তা
রূপনারায়ণপুর
১৯৯৭ এর আগে কোন একদিন দুপুরে

Advertisements

Single Post Navigation

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: