anuradha1311

Smile! You’re at the best WordPress.com site ever

মেঘ চুরি

কে যে চুরি করে নিল আকাশের মেঘের রাশি !
ছেঁড়া ছেঁড়া তুলোর মত নরম ছিল না মেঘগুলো
বেশ ঘন আস্তরণে ঢেকে ফেলেছিল নীল আকাশ
মনে হল হয়ত বা এখুনি ভাসিয়ে দেবে রাস্তাগুলো !

হায়, হায় ! কোথায় গেল তারা ? কোন অজানা দেশে
পাড়ি দিল তারা ; হঠাতি দেখা যায় সূর্য্যিমামাকে পুবের দিকে
ঠোঁটের কোণে সামান্য স্মিত হাসি, গায়ে গরম রোদের জ্যাকেট –
ভাবখানা এই, কি কেমন জব্দ ? আর আসবে সকালবেলা এই দিকে ?

এখন আমার রং খেলার কথা, হালকা গোলাপি, কমলা ও ঘন লাল
নানা রংএ এখন আকাশ রাঙাব আমি, করব নষ্ট সব বীজানু
কোথাকার তুমি হরিদাসপাল, রাত্তিরে আসলেই পার এদিকে
তখন ত’ আঁধারে তোমার ঘনঘোর রংএ ছেয়ে যাবে অণু পরমাণু ।

এই সব মেঘরোদ্দুরের চাপান উতরে, পৃথিবী ক্লান্ত হয়ে ওঠে
বলে, “বন্ধ করো তোমাদের কচ কচানি, একটু বৃষ্টি দাও আমায়,
কাঠফাটা রোদ্দুরে আমার গা’ময় ফাটা আর জ্বালা –
মেঘকে একটু জায়গা করে দাও, সূর্য্যিমামা, তুমি বাঁচাও আমায়”।

সূর্য্যিমামা ভাবে, সত্যিইত’ মন্দ কথা বলেনি পৃথিবী –

একটু জল ত’ দেওয়া যেতেই পারে, স্নিগ্ধ হবে ধরাতল

তা’ছাড়া মানুষজন এরাও বা খাবে কি, সব ত’ শুকিয়ে কাঠ

আয় মেঘ আকাশে আয়, করে দে মাটী স্নিগ্ধ সজল ।

আবার মানুষগুলোকে এখন আর বিশ্বাস নেই, যা করছে দিনরাত

কখন আবার চাঁদ বা মঙ্গলের মত হঠাত আসবে ধেয়ে –

কি জানি কি করে বসে তারা, তার চেয়ে বাবা এই বেশ

আনন্দে, শান্তিতে কাটাক জীবন তারা খেয়ে দেয়ে ।

অনুরাধা গুপ্তা

ব্যাঙ্গালোর ২১/৮/২০১২

20120827-213038.jpg

Advertisements

Single Post Navigation

One thought on “মেঘ চুরি

  1. সবুজ মোহাইমিনুল on said:

    খুব ভাল হয়েছে কবিতাটা
    আমিও মাঝে মাঝে লেখার চেষ্টা করি

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: